যারা নতুন SEO শিখতে চান তাদের জন্য শুধু।আজকে প্রথম পর্ব।সব গুলো পর্যায়ক্রমে SEO বিভাগ এ  পোস্ট করা হবে।তাহলে শুরু করা যাক।






☑  What is SEO 
 

এস ই ও কি?


সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন ,সংক্ষেপে বলা হয় SEO ।সার্চ ইঞ্জিন অপটিমিজেশন এক ধরনের প্রক্রিয়া যার মাধ্যমে কোন সাইটকে সার্চ ইঞ্জিনের কাছে গুরুত্বপূর্ণ করে তোলা হয়।এটা কখনও এক দিনে সম্পন্ন করা যায় না।এটা একটা দীর্ঘমেয়াদী এবং চলমান প্রক্রিয়া।কোন সাইটকে ভাল ভাবে অপটিমাইজ করার জন্য প্রথম থেকেই পরিকল্পনা করতে হবে।
বর্তমানে যে এস ই ও করা হয় তা মূলত গুগলকে ভিত্তি করে।এছাড়াও ইয়াহু এবং বিং কেও গুরত্ব দেওয়া হয় তবে তা গুগলের মত না।কেন গুগল্ কে এত গুরত্ব দেওয়া হয় তা নিচের ডাটা দেখলেয় বুঝতে পারবেন।২০১৩ সালের জানুয়ারী মাসে গুগলের সার্চ ট্রাফিক ৭৩.৮৯%,ইয়াহু এবং বিং এ যথাক্রমে ৮.১৯% ও ৭.২৭% ।


সার্চ ইঞ্জিনের প্রধান কাজ হল ভিজিটর যে তথ্য পাওয়ার জন্য  ওয়ার্ড (এস ই ও এর ভাষায় কি ওয়ার্ড )  সার্চ ইঞ্জিন এ সার্চ করে সেই ওয়ার্ড গুলোর জন্য সেরা বা রিলেটেড রেজাল্ট গুলো পর্যায়ক্রমে ভিজিটরের সামনে তুলে ধরা।ভিজিটররা সাধারণত সার্চ রেজাল্টের প্রথম ১-২ পেজের মধ্যে নিজের কাঙ্খিত সাইটটি খুজে নেবার চেষ্টা করে।যদি না পায় তাহলে ভিন্ন কিওয়ার্ড দিয়ে সার্চ দেয়।এ কারণে সবাই চাই নিজের সাইটটাকে একটা নিদৃষ্ট কিওয়ার্ডের জন্য সার্চ  রেজাল্ট এর সবার উপরে রাখা।আর এ কারনে শুরু হয় বিভিন্ন ধরনের স্পাম।অনেকে আছেন সার্চ রেজাল্টের এই দুর্বলতা নিয়ে খেলতে ভালবাসেন।যেমন ধরেন,হেডিং ট্যাগে অতিরিক্ত বা অবাঞ্চিত  কিওয়ার্ড ব্যাবহার করা,ফিসিং পেজ বানান,অদৃশ্য কিওয়ার্ড ব্যাবহার,অন্যের কনটেন্ট চুরি করে ব্যাবহার করা ইত্যাদি।এগুলো সব ব্লাক হ্যাট এস ই ও ।আমরা শুধূ মাত্র হোয়াইট হ্যাট এস ই ও নিয়ে আলোচনা করব।গুগলের এই জনপ্রিয়তার অন্যতম কারণ কি জানেন? তারা ভিজিটর যা চায় ঠিক সেই রেজাল্ট গুলোই দেবার চেষ্টা করে।এ কারনে আমরা সার্চ দেবার জন্য গুগলকেই বেশি পছন্দ করি ।যে কারনে গুগলকে সার্চ ইঞ্জিনের জায়ান্ট বলা হয়।

গুগল যদি তাদের এই জনপ্রিয়তা ধরে রাখতে চাই তাহলে তাদের এই সঠিক রেজাল্ট দেবার  অভ্যাসটা বজায় রাখতে হবে।কিন্তু অতিরিক্ত স্পামিং তাদের এই সঠিক রেজাল্ট দেবার জন্য বাধা স্বরুপ।কারণ স্পামিং এর কারনে অনেক অবাঞ্চিত ওয়েব সাইট সার্চ রেজাল্টের প্রথমে চলে আসে।
এই স্পামিং দূর করার জন্য গুগল বিভিন্ন সময় তার সার্চ ইঞ্জিন এলগরিদম চেঞ্জ করে।তারই ধারাবাহিকতাই গুগলের শেষ সার্চ ইঞ্জিন এলগরিদম হল পান্ডা, পেংগুইন আপডেট এবং হামিং বার্ড আর এই সার্চ ইঞ্জিন এলগরিদম চেঞ্জ হবার সাথে সাথে সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন করার পদ্ধতিতেও পরিবর্তন আনা হয়।


এখন প্রশ্ন হল আপনি কেন সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজ করবেন? 

আপনি এস ই ও না করলে আপনার সাইট সম্পর্কে মানূষ জানতে পারবেনা। আর ভিজিটর ছাড়া কোন সাইট চালান যায় না।তাহলে লাভ কি এতো কষ্ট করে সাইট তৈরি  করে ?








আমার নিজস্ব ব্লগ এর প্রতি মাসের সব চেয়ে  বেশি পেজ ভিউ হয় গুগল থেকে সাইট টা একেবারে নতুন তারপরও নতুন হিসেবে একেবারে খারাপ না । আসা করা যায় আগামী ৫ মাসের ভিতর প্রতিদিন এর চেয়েও বেশি ভিজিটর পাব ।




শেয়ার করুন :→

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন Blogger

  1. ভাই আমার একটি ব্লগ আছে,,,নতুন খুলছি।কিন্তু সমস্যা হলো এই ব্লগে কোনোবপোস্ট করলে তা গুগলে সার্চ দিয়ে কিছুতেই পাই না।
    এর সমাধান কি?
    প্লিজ হেল্প মি।
    www.hridoyerdiary.blogspot.com

    উত্তরমুছুন
  2. ভাই আমার একটি ব্লগ আছে,,,নতুন খুলছি।কিন্তু সমস্যা হলো এই ব্লগে কোনোবপোস্ট করলে তা গুগলে সার্চ দিয়ে কিছুতেই পাই না।
    এর সমাধান কি?
    প্লিজ হেল্প মি।
    http://www.hridoyerdiary.blogspot.com

    উত্তরমুছুন
  3. ভাই আমার একটি ব্লগ আছে,,,নতুন খুলছি।কিন্তু সমস্যা হলো এই ব্লগে কোনোবপোস্ট করলে তা গুগলে সার্চ দিয়ে কিছুতেই পাই না।
    এর সমাধান কি?
    প্লিজ হেল্প মি।
    https://www.hridoyerdiary.blogspot.com

    উত্তরমুছুন

আপনার একটি মন্তব্য একজন লেখক কে ভালো কিছু লিখার অনুপেরনা যোগাই তাই প্রতিটি পোস্ট পড়ার পর নিজের মতামত জানাতে ভুলবেন না । তবে বন্ধুরা এমন কোন মন্তব্য পোস্ট করবেন না যার ফলে লেখকের মনে আঘাত করে ! কারণ একটা ভাল মন্তব্য আমাদের আরও ভাল কিছু লিখার অনুপেরনা যাগাই !!

 
Top
Blogger Widgets