কেন ব্লগার ( Blogger ) ব্লগ ব্যবহার করবেন ? যেনেনিন ব্লগার ব্লগের দারুন সব ফ্রী সুবিধা !!

বন্ধুরা সবাই ক্যামন আছেন আশাকরি ভালো ও সুস্থ আছেন এবং এসোবন্ধুর সাথেই আছেন । যাই হোক আপনাদের দোয়াতে আমিও খুব ভালো ও সুস্থ আছি । আজাকের আমার পোস্ট এর টাইটেল টা দেখে আপনাদের আজব লাগছে কারন হুম লাগারি কথা ইতি মধ্যে বিভিন্ন ব্লগার ভাই কে বলতে শুনি বা শুনেছি  ব্লগার ভালো না ওয়ার্ডপ্রেস ভালো । ওয়ার্ডপ্রেস এর সুবিদা গুলো ব্লগার এর থেকে বেশি ভালো ইত্যাদি ইত্যাদি । আমিও সেই সকল ভাই সাথে একমত । তবে আমার মনে হয় তারা শুধু ওয়ার্ডপ্রেস এর সুবিধা গুলো যেনেছে বা  পড়েছে ব্লগার ব্লগের সুবিধা গুলো পড়েনি বা জানেনি ।

আসালে আপনি যদি ব্লগার ব্লগের ফ্রী সুবিধা গুলো জানেন তবে আপনিও আমার মতো অবাক হবেন । তবে ব্লগার ব্লগের যে শুধু সুবিধাই আছে সেটা বলছিনা এর অনেক অসুবিধাও আছে । সেটা অন্য কোন দিন আলচনা করা যাবে । তবে আজকে যেহেতু শুধু এর সুবিধা নিয়ে পোস্ট করছি তাই আপনাদের সামনে ব্লগার এর সুবিধা গুলো তুলে ধরবো । আমার এই পোস্টে কোন রকম ভুল হলে ধরিয়ে দেবেন ।







☞ ব্লগার ব্লগের বিভিন্ন সুবিধা সম্পর্কে যানার আগে আমাদের যানা দরকার ব্লগার কি এবং এর মালিককে এবং এর উৎপত্তি কথা থেকে ?



 ব্লগার কি ? এবং এর উৎপত্তি কোথা থেকেঃ 


ব্লগারের জন্ম ১৯৯৯ সালের ২৩শে অগাস্ট ওয়েব আপ্লিকেশন তৈরির কোম্পানি পায়রা ল্যাব এর হাত ধরে।পরবর্তীতে জায়ান্ট সার্চ ইঞ্জিন গুগল পায়রা ল্যাব কিনে নেয় ২০০৪ সালের ০২রা মে তারিখে এবং তারা এর ডেভেলোপমেন্ট এর কাজ শুরু করে।ব্লগার এর হোস্টিং গুগলের নিজস্ব সার্ভারে হোস্টিং এবং এর সাবডোমেন ব্লগস্পট(blogspot) নামে পরিচিত। তাহলে বুজতেই পারছি ব্লগার ব্লগের জন্ম দতা পায়রা ল্যাব এবং এর বর্তমান মালিক গুগল মামা ।



ব্লগার ব্লগে অ্যাকাউন্ট করতে কি কি দরকার হয়ঃ 



ব্লগার ব্লগ তৈরী করতে প্রথমে দরকার একটি জিমেইল অ্যাকাউন্ট । আপনার যদি আগে থেকে জিমেইল অ্যাকাউন্ট থাকে তাহলে আর কোন কোথাই নাই আর যদি না থাকে তাহলে এখান থেকে একটি অ্যাকাউন্ট খুনে নিন । তারপর ব্লগার.কম এ ক্লিক করে অ্যাকাউন্ট করে ব্লগিং শুরু করে দিন ।


◄▬▬▬▬▬▬▬▬▬▬►


☞ আশাকরি উপর থেকে ব্লগার সম্পর্কে কিছুটা ধারনা পেলাম এবার দেখা যাক এর ফ্রী সুবিধা এবং ব্লগার ব্যবহার করার কারনঃ


একটি অ্যাকাউন্টে মোট ব্লগের সংখ্যাঃ


আপনি একটি ব্লগার অ্যাকাউন্ট দিয়ে ভিন্ন নাম দিয়ে অনেক ব্লগ করতে পারেন । আমার যানা মতে প্রায় ১০০ টি মতো ব্লগ করতে পারবেন । কি অবাক হছেন অবাক হবার কিছুই নেই আরও তো বাকিই আছে ।


 একটি ব্লগে পোস্ট এর সংখ্যাঃ 


একটি ব্লগে পোস্ট করার বিষয়ে কোন লিমিট নেই আপনি যতো ইছে পোস্ট করতে পারেন । এক কথাই উনলিমিটেড পোস্ট করত পারেন । এ ক্ষেত্রে ব্লগার আপনার পস্র ডিলিট করবে না । তবে আপনি ইছে করলে পোস্ট ডিলিট করতে পারে । হা হা ।

 মোট কমেন্ট সংখ্যাঃ


কমেন্টের ব্যাপারেও গুগল মামার কোন কৃপনাতা নেই । আপনার ব্লগে যতো খুশি কমেন্ট পোস্ট করতে পারে । পুরনো কোন কমেন্ট ডিলিট হবে না ।


একটি পোস্ট এর মূল সাইজঃ


এখানেও ব্লগার আপনার পথের কাটা হবেনা আপনি যতো খুশি বড় পোস্ট করতে পারেন । তবে অবশ্যই আপনি আপনার প্রয়জন অনুযায়ী পোস্ট করবেন কারন বেশি বড় পোস্ট দেখে যেন ভিজিটর ঘাবড়ে না যাই । তাই দরকার ছাড়া অহেতুক পোস্টকে বড় না করাই ভালো ।


 প্রতিটি পেজ এর সাইজঃ


হুম এখানে অবশ্য ব্লগার একটি লিমিট বেধে দিয়েছে । প্রতিটি পেজের জন্য আপনাকে ১ MB করে দিয়েছে । আমার মনে হয় যথেস্ট দিয়েছে কি বলেন ।


 ফটো সাইজঃ 


আপনি চাইলে ১ GB ফটো Upload করতে পারবেন তবে এক্ষেত্রে শর্ত হিসাবে গুগল প্লাস অথাবা পিকাসার সাথে যুক্ত থাকতে হবে ।


 মোট লেখক সংখ্যাঃ


আপনি আপনার একটি ব্লগে মোট ১০০ জন মতো অতিথি লেখক যুক্ত করতে পারেন । এবাং তারা সবাই আপনার ব্লগে ইছে করলে লিখতে পারবে । তবে এক্ষেত্রে ব্লগার একটু কৃপণতা করেছে । যাই হোক আশাকরি আসাতে আসতে তারা তাদের এই কৃপণতা সারিয়ে নিবে ।


 ব্লগ ডিস্ক্রিপশনে মোট ওয়ার্ড এর সংখ্যাঃ 


আপনি ইছে করলে আপনার ব্লগে ডিস্ক্রিপশন দিতে পারেন এটা অবশ্য আপনি সেটিংস্‌ এ পেয়ে যাবে । যাই হোক আপনি ব্লগ ডিস্ক্রিপশন দেবার জন্য সর্ব মোট ৫০০ শব্দ ব্যবহার করতে পারবেন তার বেশি না । যদি আপনি ৫০০ এর বেশি শব্দ ব্যবহার করেন তাহলে সেটা প্রদর্শন নাও হতে পারে ।


 লেবেল/বিভাগ/ট্যাগ এর মোট সংখ্যাঃ 


লেবেল বা বিভাগ বা ট্যাগ বাপরে বাপ । আপনি মোট ২০০০ লেবেল বা বিভাগ বা ট্যাগ যুক্ত করতে পারবেন । তবে প্রতিটি পোস্টের ক্ষেত্রে সিমাবধ্যতা আছে প্রতি পোস্টে সর্ব মোট ২০ টি মতো যুক্ত পারবেন তার কিছু বেশিও হতে পারে ।


 ইনাকাম এর সুবিধাঃ


ব্লগার যেহেতু গুগল মামার আর গুগল অ্যাডসেন্স যেহেতু গুগল মামার তাই ব্লগার ব্লগে হাল্কা পাতলা ভিজিটর ও সামান্য কিছু পোস্ট থেকেও  গুগল অ্যাডসেন্স এ অ্যাপ্লাই করা যাই এবং তারা খুব তাড়াতাড়ি আপ্রুভ ও করে । যেটে অন্য ফ্রী ব্লগ যেমন ওয়ার্ডপ্রেস ব্লগে সম্ভব না । তাহলে আপনি ব্লগার ব্লগে ফ্রী ব্লগ করে ভালো টাকাও উপার্জন করতে পারবেন তবে বাংলা ব্লগিং করে এটা এখুন পারবেন না ।


 ব্লগার ব্লগের পেজ লোডিং স্পীডঃ 


আমার যানামতে ব্লগার ব্লগের বিভিন্ন সুবিধার মধ্যে এর পেজ লোডিং সুবিধাটি অন্যতম । কারন বিভিন্ন ফ্রী ব্লগ এর চেয়ে এর লেজ বেশি দ্রুত গতিতে লোড হয় ।



☞ তাহলে এতো কিছু সুবিধা ব্লগার ব্লগ দিছে সম্পূর্ণ ফ্রী কোন রকম খরচা ছাড়া । যেটে ইন্টারনেট জগতে আর কোন প্লাটফর্ম দিছেনা ।


☞ আমার যানা বিষয় গুলো শেয়ার করলাম আমার জানার মধ্যে ভুল থাকতে পারে । যদি কোন ভাল থাকে অবশ্যই আমাকে সেই ভুল ধিরিয়ে দেবেন অবশ্যই প্রমান সহ । যাই হোক আমার এই পোস্ট আপনার ভালো লাগলে অবশ্যই বন্ধুদের সাথে শেয়ার করবেন । ভালো থাকবেন সুস্থ থাকবেন । আল্লাহ্‌ হাফেজ ।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

2 মন্তব্য

আপনার একটি মন্তব্য একজন লেখক কে ভালো কিছু লিখার অনুপেরনা যোগাই তাই প্রতিটি পোস্ট পড়ার পর নিজের মতামত জানাতে ভুলবেন না । তবে বন্ধুরা এমন কোন মন্তব্য পোস্ট করবেন না যার ফলে লেখকের মনে আঘাত করে ! কারণ একটা ভাল মন্তব্য আমাদের আরও ভাল কিছু লিখার অনুপেরনা যাগাই !!